Untitled Document
BREAKING NEWS   ||    কোটালীপাড়ায় কর্মস্থলে অনুপস্থিত থেকে পূর্ণ বেতন তোলার পায়তারা করছেন প্রধান শিক্ষক      ||   কোটালীপাড়ায় ২ শিক্ষকের দ্বন্দ্বে উঠে এসেছে নানা অনিয়ম দূর্ণীতির অভিযোগ      ||   আপনার সন্তানের ভবিষ্যতের জন্য সঠিক বিনিয়োগ করছেন কি?      ||   কোটালীপাড়ায় ঘূর্ণীঝড় বুলবুল মোকাবেলায় বঙ্গবন্ধু চেতনা যুব সৈনিক সংঘের প্রস্তুতিমূলক সভা      ||   কোটালীপাড়া উপজেলা ছাত্রলীগের অপ্রতিরোধ্য যোদ্ধা চৌধুরী সেলিম আহম্মেদ ছোটন       ||   সংসদ সদস্য মঈন উদ্দীন খান বাদল মারা গেছেন      ||   কোটালীপাড়ায় দুই পক্ষের সংঘর্ষে এসএসসি পরীক্ষার্থীসহ আহত ৫      ||   গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় ৩৮ পিচ ইয়াবাসহ আটক ১      ||   গোপালগঞ্জ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ১৭ দফা দাবিতে বিক্ষোভ-সমাবেশ      ||   গোপালগঞ্জ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ৬ শিক্ষার্থীকে শোকজ      ||   মুকসুদপুরের জলিলপাড় ইউনিয়ন আ’লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত      ||   কোটালীপাড়ায় স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করার দাবিতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ      ||   কোটালীপাড়ায় স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করার দাবিতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ      ||   ইউনিয়ন কমিটিতে কোনো রাজাকার দেখতে চাই না : মুক্তিযোদ্ধা ওমর আলী        ||   কোটালীপাড়ায় “বঙ্গবন্ধুর দর্শন, সমবায়ে উন্নয়ন” এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে ৪৮তম জাতীয় সমাবায় দিবস- ২০১৯ উপলক্ষে র‌্যালি ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত     
তারিখ: 2019-11-04     | প্রতিনিধি:


প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নিজ নির্বাচনী এলাকা গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়া উপজেলায় জনগনের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করার দাবিতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। 

সোমবার দুপুর ১২টা থেকে ১টা পর্যন্ত ঘন্টা ব্যাপী উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রের সামনের সড়কে কোটালীপাড়ার সর্বস্তরের জনগনের ব্যানারে এ মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়। মানববন্ধন কর্মসূচি শেষে একটি বিক্ষোভ মিছিল শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে উপজেলা পরিষদ চত্ত্বরে এসে একটি বিক্ষোভ সমাবেশে মিলিত হয়। 

এ সময় ব্যবসায়ী রফিকুল ইসলাম পটু, বঙ্গবন্ধু চেতনা সৈনিক সংঘের সভাপতি দিদারুল ইসলাম খান, উপজেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি রেজওয়ান মুন্সী, ব্যবসায়ী সঞ্জয় বিশ^াস, সেকেন্দার ফরাজী, এনামুল হক মোল্লা বক্তব্য রাখেন। 

বক্তারা বলেন, কোটালীপাড়া উপজেলার সাড়ে ৩ লক্ষ জনগনের স্বাস্থ্যসেবায় ৩জন ডাক্তার কর্মরত রয়েছে। প্রতিদিন এই স্বাস্থ্য কেন্দ্রের আউট ডোরে ৫শত থেকে ৬ শত রোগী হয়। আউট ডোরে কোন দিন ১জন, কোন দিন ২ জন ডাক্তার থাকে। অনেক রোগীই সেবা না পেয়ে বাড়ি ফিরে যায়। যদি আগামী ১ সপ্তাহের মধ্যে এই স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ডাক্তার দেওয়া না হয় তা হলে আমরা কঠোর আন্দোলনে যাবো। 

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তার কার্যালয় সুত্রে জানাগেছে, ৫০ শয্যা বিশিষ্ট এই স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ডাক্তারদের ২১ টি পদের অনুকুলে বর্তমানে এখানে মাত্র ৩জন ডাক্তার রয়েছে। 

গত ২৯ আগস্ট স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য বিভাগ থেকে ডা. মো: শরাফাত হোসাইন (কোড-১১৩৬৪২), ডা. মো: আবু দাউদ খান মো: ইয়াহিয়া (কোড-৩৯৬৪৯), ডা. মো: রেজাউল করিম(কোড-১১৩৬৬৭) কে কোটালীপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে বদলি করে।

অপরদিকে একই তারিখে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে ডা. মো: সাকীফ মাহরিয়ার (কোড-১৩০৮৩২), ডা. মোহাম্মদ আহাদ হোসেন (কোড- ১০০৪৮১৬), ডা. মো: আহসান কবির (কোড- ১৩৪৫৩৫), ডা. ছাইয়োদ মুহাম্মদ আমরুল্লাহ (কোড- ১০০৩৮৯২) কে কোটালীপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে বদলি করে। বদলিকৃত এই ৭ ডাক্তারকে সেপ্টেম্বর মাসের ২ তারিখের মধ্যে কোটালীপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে যোগদান করতে নির্দেশ দেয়া হয়। কিন্তু এই ৭ ডাক্তারের মধ্যে শুরু মাত্র ডা. ছাইয়োদ মুহাম্মদ আমরুল্লাহ কোটালীপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে যোগদান করেছে। বাকি ৬ ডাক্তার  স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নির্দেশনাকে অপেক্ষা করে এখনো কোটালীপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে যোগদান করেনি। 

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. সুশান্ত বৈদ্য বলেন, পদায়নকৃত ৭ ডাক্তারকে সেপ্টেম্বর মাসের ২ তারিখে এখানে যোগদান করতে বলা হয়েছিল । কিন্তু এ ৭ ডাক্তারের মধ্যে শুধু মাত্র ডা. ছাইয়োদ মুহাম্মদ আমরুল্লাহ যোগদান করেছেন। বাকি ৬ ডাক্তার এখানে যোগদান করেনি। বিষয়টি আমি সেপ্টেম্বর মাসের ১২ তারিখে লিখিত ভাবে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরকে জানিয়েছে। 

যোগদানকৃত ডাক্তার ডা. ছাইয়োদ মুহাম্মদ আমরুল্লাহ বলেন, আমি এখানে যোগদান করার পরে দেখলাম, প্রতিদিন এখানে আউট ডোরে  ৫থেকে ৬শত রোগী হয়। আমরা যে কয়েকজন ডাক্তার এখানে আছি তাদের রোগী দেখতে হিমশিত খেতে হচ্ছে। 

কোটালীপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে কেন এই ৬ ডাক্তার যোগদান করলেন না এ বিষয়ে জানার জন্য তাদের মুঠোফোনে চেষ্টা করেও কাউকে পাওয়া যায়নি। 

ডহরপাড়া গ্রামের মো: রফিকুর ইসলাম পটু বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নিজ নির্বাচনী এলাকায় বদলীকৃত ডাক্তাররা যোগদান করেননি। আমরা তাদের এই সাহসিকতায় হতাশ। এ উপজেলায় প্রায় সাড়ে ৩ লক্ষ জনগনের বসবাস। এই বিপুল জনগনের চিকিৎসার জন্য রয়েছে মাত্র ৩জন ডাক্তার। এখানে জরুরী ভাবে ডাক্তার প্রয়োজন। 

গোপালগঞ্জ সিভিল সার্জন ডা. তরুন মন্ডল বলেন,  স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তর কোটালীপাড়ায় ডাক্তার দিচ্ছে।  কিন্তু বদলিকৃত ডাক্তাররা এখানে যোগদান করছেন না। এ  বিষয়ে আমি স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে কথা বলেছি। আশা করি খুব শ্রীঘই এই স্বাস্থ্য কেন্দ্রর ডাক্তারের সমস্যা সমাধান হয়ে যাবে। 




জাতীয়
সংসদ সদস্য মঈন উদ্দীন খান বাদল মারা গেছেন

বেনাপোলে কমিউনিটি পুলিশিং ডে পালিত

শ্রীমঙ্গলসহ চা এর দেশে শীতের আমেজ

আজারবাইজানের শহীদদের প্রতি প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা নিবেদন

শাহজালালে সৌদিগামী উড়োজাহাজের জরুরি অবতরণ

ওমর ফারুক ও তার পরিবারের সদস্যদের ব্যাংক হিসাব জব্দ

দলের লোকদেরও ছাড় দেওয়া হবে না : প্রধানমন্ত্রী

আইন অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে অভিযান চলছে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

বাংলাদেশ-পাকিস্তান-আফগানিস্তানের হিন্দুদের ভারতীয় নাগরিকত্ব দেওয়ার দাবি

ভারতে ঢুকে পড়েছে চীনা সেনাবাহিনী!

 
 
  Bangladesh Khabor- 2017