1. bkhabor24@gmail.com : Molla Mohiuddin : Molla Mohiuddin
  2. jmitsolution24@gmail.com : support :
বৃহস্পতিবার, ২৯ অক্টোবর ২০২০, ০৮:১৬ অপরাহ্ন

ভারতের সাথে বাংলাদেশের সম্পর্ক অটুট থাকবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

  • Update Time : বুধবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ৭৩ জন পঠিত

বাংলাদেশ খবর ডেস্ক,

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, ‘ভারতের সাথে বাংলাদেশের অনেক পুরোনো সম্পর্ক। এ সম্পর্ক অটুট রয়েছে এবং ভবিষ্যতেও থাকবে। মুক্তিযুদ্ধের সময় ভারতের সহযোগিতার কথা ভুলে যাওয়ার নয়।’

বুধবার (২৩ সেপ্টেম্বর) দুপুরে ঢাকার দোহার উপজেলায় মালিকান্দা এলাকায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর আমন্ত্রণে ভারতের বিদায়ী রাষ্ট্রদূত রিভা গাঙ্গুলি দাসের গান্ধীজীর আশ্রম পরিদর্শন ও তার সাথে বিদায়ী সাক্ষাতকালে মন্ত্রী এসব কথা বলেন। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘ভারতীয় হাইকমিশনার যখন আমার সাথে বিদায়ী সাক্ষাত করতে চাইলেন, তখন আমি তাকে গান্ধীজীর আশ্রম পরিদর্শনের আমন্ত্রণ করি এতে তিনি রাজি হন এবং এখানে আসেন।’ এসময় ভারত বাংলাদেশের সম্পর্ক নিয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে বিদায়ী রাষ্ট্রদূত রিভা গাঙ্গুলি দাস বলেন, ‘বাংলাদেশ ও ভারতের সম্পর্ক অটুট রয়েছে এবং ভবিষ্যতে এ সম্পর্ক আরও সুদূঢ় হবে বলে তিনি মনে করেন।’ তিনি বলেন, ‘আমি চলে যাচ্ছি ঠিকই তবে আমি বাংলাদেশকে অনেক মিস করব।’

ঢাকা জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুর রহমানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন-স্বরাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ের সিনিয়র সচিব মো. মোস্তফা কামাল উদ্দিন, পুলিশের মহাপরিদর্শক ড.বেনজীর আহমেদ, উপ-মহাপরিদর্শক হাবিবুর রহমান, ঢাকা জেলা পুলিশ সুপার মারুফ সর্দার, স্বেচ্ছাসেবকলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি নির্মল রঞ্জন গুহ, দোহার উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো. আলমগীর হোসেন,দোহার উপজেলা নির্বাহী অফিসার এ এফ এম ফিরোজ মাহমুদ, দোহার উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নজরুল ইসলাম বাবুল, সাধারণ সম্পাদক খোকন শিকদার, দোহার থানা অফিসার ইনচার্জ মোস্তফা কামাল,নবাবগঞ্জ থানা অফিসার ইনচার্জ সিরাজুল ইসলাম শেখ। অনুষ্ঠান শেষে গান্ধীজী আশ্রম প্রাঙ্গণে পৃথক ভাবে দুটি গাছের চারা রোপণ করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও ভারতীয় হাইকমিশনার।

উল্লেখ্য, পশ্চিমবঙ্গের প্রথম মুখ্যমন্ত্রী ড. প্রফুল্ল চন্দ্র ঘোষের আমন্ত্রণে মহাত্মা গান্ধী দোহারের এই আশ্রমে দুইবার এসেছিলেন। প্রথম আসেন ১৯৩৭ সালে। তখন প্রফুল্ল ঘোষের দোহারের বাড়িতে ৭দিন অবস্থান করে ছিলেন। এরপর ১৯৪৩ সালে এসে এই স্থানটিতে দুই সপ্তাহ অবস্থান করে ছিলেন।

 

 

 

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2020
Design & Develpment by : JM IT SOLUTION