1. bkhabor24@gmail.com : Molla Mohiuddin : Molla Mohiuddin
  2. jmitsolution24@gmail.com : support :
মঙ্গলবার, ২৭ অক্টোবর ২০২০, ১১:১৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে র‍্যাবের মহাপরিচালক চৌধুরী আবদুল্লাহ আল মামুন’র শ্রদ্ধা নিবেদন পাটগ্রামে  হারিয়ে যাওয়া দুই শিশুকে পিতার কাছে হস্তান্তর গাইবান্ধায় জাতীয়তাবাদী যুবদলের ৪২ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত কোটালীপাড়ায় অগ্নিকান্ডে ৪ টি দোকান ভস্মীভুত ভারতে যাবে আজ বাংলাদেশের পরীক্ষামূলক রেল ইঞ্জিন সকালে দেশে ফিরেছেন রাষ্ট্রপতি বগুড়া ধুনটে সাম্প্রদায়িক সম্প্রতির ঐতিহ্য ‘বউ মেলা’ অনুষ্ঠিত মির্জা ফখরুল সাহেব যা বলেন, তা নিজে বিশ্বাস করতে পারেন কিনা : কাদের অপরাধ করলে ছাড় নয় আইনের মুখোমুখী হতেই হবে “ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বগুড়া চাঁদপুরস্থ দুর্গা মন্দির পরিদর্শন করলেন বিট পুলিশিং কমিটি

হাড়িয়ে যাচ্ছে জাতীয় খেলা হা-ডু-ডু, আগৈলঝাড়ায় জনতার ঢল

  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ৬০ জন পঠিত

বরিশাল থেকে এস এম ওমর আলী সানী,

সভ্যতার ক্রমবিকাশ আর আধুনিকতার দৌরাত্মে হারিয়ে যাচ্ছে গ্রামবাংলার ঐহিত্যবাহী জাতীয় হা-ডু-ডু খেলা। আধুনিক সভ্যতার ছোঁয়া ও কালের বিবর্তনে মহাকালের পাতা থেকে ক্রমশ অস্পষ্ট হয়ে যাচ্ছে এসব খেলাধূলার নাম। হারিয়ে যাওয়া বাংলার ঐতিহ্যবাহী হা-ডু-ডু খেলাটির অতীত ঐতিহ্য ফিরিয়ে আনতে ও গ্রামের মধ্যে সম্প্রীতি রাখতে বুধবার বিকালে বরিশালের আগৈলঝাাড়া উপজেলার গৈলা যুবসংঘের উদ্যোগে বড়ইতলা বালুর মাঠে প্রীতিম্যাচ হাডুডু খেলার আয়োজন করা হয়। খেলায় অংশগ্রহন করে বড়ইতলা একাদশ ও শরিফাবাদ একাদশ। প্রায় বিলুপ্তির পথে জাতীয় এই খেলাকে ঘিরে তৈরি হয় উৎসব মুখর পরিবেশ। নারী পুরুষ ও শিশু থেকে শুরু করে বৃদ্ধা খেলা উপভোগ করেন।
এব্যাপারে আয়োযোগ সাবেক ছাত্রনেতা বুজ আকন বলেন, এক সময় এ দেশের ছেলেমেয়েরা গ্রামীণ খেলাকে প্রধান খেলা হিসেবে জানতো। কিন্তু তার জায়গা দখল করেছে লুডো, কেরাম, ক্রিকেট, টিভি, কম্পিউটার। আমাদের আদি ক্রীড়া সংস্কৃতিকে বাঁচিয়ে রাখতে অবশ্যই গ্রামীণ ক্রীড়া ফেডারেশন গঠন করা দরকার। এতে আগামী প্রজন্ম আমাদের এসব খেলাকে জানতে পারবে। ভুলে যাবে না আমাদের শত বছরের নিজস্ব ক্রীড়া ঐতিহ্য।
খেলার উদ্যোক্তা আবুল বসার সরদার বলেন, গ্রামবাংলার প্রাচীনতম ঐতিহ্য কাবাডি (হাডুডু) খেলা আমাদের দেশের জাতীয় খেলা হলেও এখন অনেকটাই কালের বিবর্তনে হারিয়ে যেতে বসেছে। এমন আয়োজন সচরাচর দেখা যায় না। এ খেলার ঐতিহ্য ধরে রাখতে প্রতিবছরের ন্যায় আমাদের গ্রামে এবছরও হয়েছে আগামীতেও কাবাডি (হাডুডু) খেলা আয়োজন করা হবে।

খেলায় পরিচালকের দ্বায়ীত্বে থাকা নুর মোহম্মদ গাজী, তালুকদার মনিরুজ্জামান মনির, হাফিজুল সরদার বলেন, দেশের জাতীয় খেলাকে টিকিয়ে রাখতে ও যুব সমাজকে মাদক মুক্ত রাখতে খেলায় আগ্রহী করে তোলার পাশাপাশি গ্রামের মানুষের সাথে সৌহার্দ্য বাড়াতে প্রতি বছরই আয়োজন করা দরকার মনে করি এবং এ ধরনের আয়োজন করলে প্রতিভাবান খেলোয়ার তৈরী হবে এবং আগামীতেও এমন আয়োজন অব্যাহত রাখতে উপস্থিত নেতৃবৃন্দরা আশাপ্রকাশ করেন।
খেলায় শরিফাবাদ একাদশ গৈলা একাদশকে ২ গোলে হারিয়ে বিজয়ী হন। পরে বিজয়ীদেরকে পুরুষকৃত করা হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন, আগৈলঝাড়া সরকারি শহীদ আব্দুর রব সেরনিয়াবাত ডিগ্রী কলেজের ছাত্রলীগের সভাপতি বরুন কুমার বাড়ৈ, গৈলা ইউনিয়নের ৬ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি কবির আকন, সাধারণ সম্পাদক সকোচ মন্ডল, গৈলা ইউনিয়নের ৫ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর হোসেন মোল্লা, নকুল মন্ডর, হান্নান সরদার, হারুন সরদার প্রমূখ।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2020
Design & Develpment by : JM IT SOLUTION