1. bkhabor24@gmail.com : Molla Mohiuddin : Molla Mohiuddin
  2. jmitsolution24@gmail.com : support :
সোমবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২১, ১১:০২ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
কুষ্টিয়ার পুলিশ সুপার ব্যাখ্যা দিতে হাইকোর্টে ১৫৪ বার ‘ধুম থ্রি’ দেখে বগুড়ার কিশোরের ব্যাংক ডাকাতির ভয়ংকর বর্ণনা লালমনিরহাটে  বোরো ধান রোপনে মাঠে কৃষক ঐতিহ্যবাহী মধুমতি নদীতে নতুন ব্রীজের ভিত্তিপ্রস্তর উদ্বোধন করলেন শেখ সেলিম -এমপি কালীগঞ্জে মুজিববর্ষে ১৫০টি গৃহহীন পরিবারকে জমি ও গৃহ প্রদান জয়পুরহাটে বিট পুলিশিং এর জনসচেতনতা মূলক সমাবেশ-২০২১ অনুষ্ঠিত বগুড়ায় ১৭নং ওয়ার্ডে পৌরনির্বাচন উপলক্ষে আ`লীগের মতবিনিময় সভা কুয়াকাটায় তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে হামলা ও সংঘর্ষ আহত-৪ পাঁচবিবিতে ভূমিহীনদের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর ঘর উপহার বগুড়ায় পুলিশের উদ্যোগে কম্বল বিতরণ

আগৈলঝাড়ায় যৌতুকের দাবীতে স্ত্রীকে নির্যাতন, স্বামী জেলে।

  • Update Time : শনিবার, ১২ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ১২০ জন পঠিত

বরিশাল থেকে এস এম ওমর আলী সানী,

বরিশালের আগৈলঝাড়া উপজেলার গৈলা ইউনিয়নের অশোকসেন গ্রামের ৫ লক্ষ টাকা যৌতুকের জন্য স্ত্রীকে স্বামীর শারীরিক নির্যাতন। গুরুতর আহত স্ত্রী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসর জন্য ভর্তি করা হয়েছে। স্ত্রী বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের ,পুলিশ স্বামীকে গ্রেফতার করে জেল হাজতে প্রেরন করা হয়েছে।
স্থানীয় ও মামলা সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার গৈলা ইউনিয়নের অশোকসেন গ্রামের ফারুক মোল্লার মেয়ে লিমা আক্তারকে একই এলাকার মনজুর মোল্লার ছেলে আব্দুল হামিদ মোল্লার সাথে ৮ বছর পূর্বে বিয়ে দেওয়া হয়। বিয়ের সময় যৌতুক দেওয়ার পরেও পুনরায় ৫ লক্ষ টাকা যৌতুক দাবি করে। পিতার কাছ থেকে যৌতুেকর টাকা আনতে অস্বিকার করেলে স্ত্রী লিমাকে শারিরীক নির্যাতন করে স্বামী হামিদ মোল্লা। সর্বশেষ বৃহস্পতিবার রাতে পুনরায় ওই যৌতুকের টাকার জন্য লিমাকে শারিরীক নির্যাতন করে গুরুতর আহত অবস্থায় ফেলে রাখে স্বামী হামিদ মোল্লা। সংবাদ পেয়ে লিমার পিতা ফারুক মোল্লা গিয়ে মেয়েকে উদ্ধার করে গুরুতর অবস্থায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসর জন্য ভর্তি করেন। নির্যাতন সইতে না পেয়ে শুক্রবার রাতে লিমা আক্তার বাদী হয়ে আগৈলঝাড়া থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেন। ওই মামলার আসামী স্বামী আ.হামিদকে শনিবার গ্রেফতার করে। গতকাল শনিবার দুপুরে তাকে বরিশাল আদালতে প্রেরন করা হয়েছে। আদালত তাকে জেলহাতে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2020
Design & Develpment by : JM IT SOLUTION